চলন্তিকা এই জীবনে এমন কিছু ঘটনা ঘটে যায় অথবা এমন কিছু ঘটনার সাক্ষী হতে হয় যা শিখিয়ে যায় অনেক কিছু। আজ একটি শিক্ষণীয় ছোট ঘটনা গল্পের আঁকারে নিয়ে আসা হয়েছে ছাড়পত্র আশা রাখছে গল্পটি পাঠকের মনে ছাপ ফেলবে।

শিক্ষনীয় ছোট ঘটনাঃ- “প্রকৃত শিক্ষা”

কয়েক মাস ধরেই বাবার রিটার্ডমেন্ট কে কেন্দ্র করে বাড়িতে কর্মক্ষেত্র এর দক্ষযজ্ঞ চলছে । সারাদিন মা এই পেপার সেই পেপার ঘেঁটে কোথায় কোন কর্মখালি এর ভ্যাকান্সি বেরিয়েছে সেই নিয়ে কান ঝালাপালা করে ছেড়েছে । এর মধ্যে দাদা তো কোনোরকম একটা কোম্পানি তে কাজের ব্যবস্থা করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেল , কিন্তু রয়ে গেলাম এবার আমি একা ।

অবশ্য দাদার যাওয়ার পর মা আর আমার কানে তেমন ভাবে কর্মখালি এর কোনো খবর তুলে দেয়নি। আর কোথাও কাজের কথাও বলেনি। কিন্তু আমার মন তো একেবারে টাইট হয়ে ফাইট করার অবস্থায় পৌঁছেছে। তাই আমি নিজেই গ্রামাঞ্চলে মাধ্যমিকের রেজাল্টের খাতিরে পোস্ট মাস্টারের কাজটা জুটিয়েই নিলাম । তবে এখানে আসতে দেওয়ার মায়ের বিন্দু মাত্র ইচ্ছা ছিল না। এক প্রকার জেদের বসেই বাড়ি ছেড়েছি। আর সেটাই হয়েছে আমার জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা।

এই প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে আসার পর থেকে বুঝতে পেরেছি সত্যিকারের জীবন কাকে বলে, বুঝেছি জীবনের মানে।

শিক্ষনীয় ছোট ঘটনা
শিক্ষনীয় ছোট ঘটনা

গ্রামের একেবারে শেষের দিকে একটা পোরো ভাঙ্গা মাটির বাড়িতে আমার আশ্রয়স্থল । আর সেখানে জনবসতি প্রায় নেই বললেই চলে। সামান্য পানীয় জলের জন্য ও এখানে মেয়েরা ৩ কিমি পথ অতিক্রম করে পাশের গ্রামে যায়। তবে আমার সহযোগী রূপে একটি বছর পনেরো এর ছেলেকে পেয়েছি । সেই আমার জল আর খাবারের ব্যবস্থা করে দেয়। তবে এই গ্রামের সব মেয়েরাই আমায় দেখলে এক হাত ঘোমটা টেনে মাথা নীচু করে পেরিয়ে যায়।

ছেলেটির মুখে শুনেছি এই গ্রামে সবাই নাকি আমায় শহুরে পোস্ট মাস্টার নাম দিয়েছে । আমার কাজের জায়গা টি ও এখান থেকে অনেকটাই দূরে তাই কোনোরকম একটা সাইকেলের ব্যবস্থা করে যাতায়াত করি।

এই প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে প্রতিদিন নতুন নতুন অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হই। সেদিন তো দেখলাম ডাক্তার আর ওষুধের অভাবে একটি ছোট্ট শিশু প্রাণ হারালো। এমনকি এখানের মানুষরা রুটি জিনিস টা কি সেটাও জানে না, ভাত টায় তাদের একমাত্র খাদ্য ।

এখানের মানুষ এখনও অবধি জানেনা কারেন্ট কি ! তারা কেরোসিন এর মাধ্যমে হ্যারিকেন কিংবা লন্ঠন জ্বালিয়ে নিশা যাপন করে । শিক্ষার আলো এখনো পর্যন্ত পৌঁছায় নি তাদের কাছে । নিরক্ষর সরল মানুষগুলোর এরূপ অবস্থা দেখে সত্যি বড্ড অসহায় লাগে । বারেবারে মন প্রশ্ন করে সত্যিই কি আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র বাস করি ?

পড়ুনঃ- জীবন নিয়ে শিক্ষণীয় গল্প 

আর যদি বাসেই করি তাহলে এখনো এতটা দুরবস্থা কেন !

এসবের মাঝেই একদিন আমার কাছে থাকা ওই ছেলেটি জিজ্ঞাসা করলো , শহুরে বাবু একটা প্রশ্ন ছিল।
আমি উৎসুক হয়ে বললাম বলো কি প্রশ্ন!
ছেলেটি কৌতূহলী দৃষ্টিতে জিজ্ঞেস করলো বাবু শিক্ষা মানে কি? এটা কীভাবে পাওয়া যায়?

আমি তার প্রশ্নের কোনো সঠিক উত্তর দিতে পারলাম না , থমকে রয়ে গেলাম । কিন্তু তার এই একটি প্রশ্ন যে আমার জীবন বদলে দিতে চলেছে সেটা আমি সেদিন উপলব্ধি করলাম ।

পরের দিন পোস্ট মাস্টার এর কাজে ইস্তফা দিয়ে যেটুকু টাকা জমেছে সেই নিয়ে ওই গ্রাম ফিরে এলাম। আমার কাছে থাকা ওই ছেলেটিকে ডেকে বললাম, বাবু তুমি শিক্ষা কি জানতে চাও ?

সে তো আনন্দে আত্মহারা হয়ে বলল চাই বাবু জানতে চাই । কারণ সেইটা জানলেই তো আপনার মত হতে পারবো বলুন ।
এরপর সেখানের বাচ্চা থেকে শুরু করে বয়স্ক সবাইকে পড়াশোনা নিয়ে থাকা অন্ধবিশ্বাস থেকে বের করে শিক্ষার আঙিনায় পৌঁছানোর রাস্তার দিশারী বলে নিজেকে নির্বাচন করলাম ।

সবকিছু ভালোভাবে চলছিল ইতিমধ্যে একটা বছর কেটেও গিয়েছিল তাদের সাথে । এর মধ্যেই অনেকেই বাংলা ইংরেজি রিডিং পড়া আয়ত্ত করে ফেলেছে । এখন সবাই আমাকে মাস্টার বাবু বলেই ডাকে ।

কিন্তু সব ভালোর মাঝেও খারাপ যেন ওট পেতে থাকে কখন তার আয়ত্তে দাপটে ফেলতে পারে সেই আশায় ।

শিক্ষামূলক গল্প ও ঘটনা
শিক্ষামূলক গল্প ও ঘটনা

দুঃসংবাদ এলো , বাবার শরীর খুব অসুস্থ আর মা শয্যাশায়ী । আর দাদা কোম্পানির কাজে ৬ মাস ধরে বিদেশে আছে সে কোনোভাবেই বাড়ি ফিরতে পারবে না । তাই একদিকে এই মানুষগুলোর শিক্ষার ভার অন্যদিকে পরিবার দুই এর টানা পোড়ন এ শেষমেশ পরিবারকেই বাছতে হলো ।

শহরে ফিরে আসতে হলো আমাকে। মাঝ রাস্তায় ওদের দিসার হদিস দেখিয়ে আবারও পথভ্রষ্ট করে ছেড়ে এলাম নিজের শহরে। এদিকের অবস্থা খুব এই শোচনীয় থাকায় আর ফেরা হলো না গ্রামে , বাবা মায়ের শেষ ইচ্ছা পূরণে ছোট বেলার বান্ধবী শ্রেয়া কে বিয়ে করে শহরেই সংসার পাততে হলো । সব কিছুর মাঝে ধীরে ধীরে ভুলেই গেলাম ওই গ্রামের মানুষগুলোর কথা। ভুলে গেলাম তাদেরকে দেওয়া কথা ।

দেখতে দেখতে আরও কয়েকটা বছর কেটেও গেলো। এর মধ্যে আমি দুই সন্তানের বাবা । কাজ থেকে ফিরে ছেলেদের নিয়ে একটা সেমিনারে যাচ্ছি । সেখানে সব গণ্য মান্য অফিসাররা আসবেন । অফিস থেকেই আমাকে আমন্ত্রণ করা হয়েছে । তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই যেতে হচ্ছে।

সেমিনার শুরুর পর একে একে অনেককেই অভ্যর্থনা জানানো হচ্ছিল। তাদের মধ্যে একটি ছেলেকে আমার বেশ চেনা লাগছিল কিন্তু মনে পড়ছিল না কোথায় দেখেছি । তাই স্টেজে উঠার পর জানতে পারলাম সে ডিফেন্স লাইনে চিফ কমিশনার পদে সদ্য নিয়োগ হয়েছে। ছেলেটি স্টেজে উঠে বললো সে একটি প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে উঠে এসেছে। এমনকি তারা আগে জানতো ও না শিক্ষা আসলে কি ?

পড়ুনঃ- অসাধারন শিক্ষণীয় গল্প 

তবে তাদের পথের দিশারী রূপে এক শহুরে বাবুর আগমন হয়। আর তিনিই তার এই সাফল্যের প্রধান কারণ । হঠাৎ করে আমার নাম তার মুখে শুনে আমি চমকে উঠলাম । ছেলেটি অশ্রু ভরা চোখে আমার দিকে চেয়ে বলে উঠলো ” চিনতে পারছেন মাস্টার বাবু আমাকে?”

আমি অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে বললাম ” তুমি “?
ছেলেটি বলল আমার দাদা আপনার কাছে কাজ করতো মনে আছে বাবু। আর আপনি এই আমাদের ওই প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে মানুষগুলোকে শিক্ষার দিশা দেখিয়েছিলেন।

তবে ভাগ্য দুর্বিপাকে যেদিন আপনি আমাদের ছেড়ে এলেন সেদিন শুধু আমরা না গ্রামের সবাই কেঁদে ছিলাম , আর চোখের জল ফেলতে ফেলতে বারবার বলেছিলাম বাবু আপনার দেখানো পথ আমরা কখনো ভুলবো না , কখনো না।

motivational story in bengali
motivational story in bengali
<

তাই আজ আমাদের গ্রাম এর অনেক ছেলে মেয়ে শিক্ষার আলোয় আলোকিত বাবু । আর সবটাই আপনার জন্য আপনিই আমাদের অন্ধকারের মাঝে আলোর দিশা দেখিয়েছেন বাবু … আপনিই আমাদের দেবতা … আপনিই পরম পূজনীয়।

আমি কাঁদতে কাঁদতে হল ভর্তি লোকের সামনেই দৌড়ে গিয়ে তাকে জড়িয়ে ধরলাম । মাঝপথে আমি তাদের দিশাহারা করে ছেড়ে এলেও , ওরা আমায় ভোলেনি , আমি ভুললেও তারা আজও সমান সম্মান আর কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে আজ আমায় শ্রেষ্ঠ আসনে প্রতিষ্ঠা করেছে।

আচ্ছা বলুন না আপনারাই … এটাকেই কি বলে না প্রকৃত শিক্ষা নতুবা প্রকৃত শিক্ষিত !

তাকে জড়িয়ে ধরে মুখ থেকে আমার একটাই বাক্য বারবার বেরিয়ে এলো ” একেই বলে শিক্ষা , হ্যাঁ হ্যাঁ একেই বলে বোধহয় প্রকৃত শিক্ষা”।

আলোরানি মিশ্র

গল্পের রূপায়ণে
গল্প পাঠাতে পারেন- charpatrablog@gmail.com -এ অথবা সরাসরি WhatsApp -এর মাধ্যমে এখানে ক্লিক করে।
সমস্ত কপিরাইট ছাড়পত্র দ্বারা সংরক্ষিত। গল্পটির ভিডিও বা অডিও বা অন্য কোনো মাধ্যমে অন্যত্র প্রকাশ আইন বিরুদ্ধ। ছাড়পত্র এর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণে বাধ্য হবে।
নিচে দেওয়া wp গ্রুপ টি শুধু মাত্র অ্যাক্টিভ মেম্বারদের জন্য। যাদের মনে হবে ব্যস্ত জীবনের অল্প সময় ও এখানে ব্যয় করতে পারবেন আড্ডা আলোচনার মধ্যে তাদের জন্য।  
বি.দ্র. - ইউটিউবার দাদা দিদিরা যারা কনটেন্ট খুঁজতে গ্রুপ এ আসেন তারা এখানে অহেতুক ভিড় জমিয়ে নিজেদের ক্ষতি ডেকে আনবেন না। 

WHATSAPP GROUP LINK- ছাড়পত্রিয়ানস (CHARPATRIANS)  👈🏻 ক্লিক করুন
পড়ুনঃ- 
জীবন নিয়ে অসাধারন একটি গল্প 

ভালোবাসার গল্প পড়তে এখানে ক্লিক করুন 
আমাদের সাথে যুক্ত হবেন যেভাবে- 

ফেসবুক Group - গল্প Junction 

ফেসবুক- ছাড়পত্র

টেলিগ্রাম- charpatraOfficial

একটি অসাধারন শিক্ষনীয় ছোট ঘটনা। শিক্ষামূলক গল্প ও ঘটনা। শিক্ষার আলো

Spread the love

1 thought on “একটি অসাধারন শিক্ষনীয় ছোট ঘটনা। শিক্ষামূলক গল্প ও ঘটনা। শিক্ষার আলো। 1 outstanding motivational story in bengali.”

Leave a Reply