BLOGGING VS YOUTUBE IN 2022 BENGALI।। ব্লগিং vs ইউটিউব 2022।।BLOGGING IN 2022।। WHICH IS BEST CHOICE YOUTUBE OR BLOGGING

Spread the love

ব্লগিং vs ইউটিউব IN 2022

বর্তমান দিনে আপনি এমন অনেক মানুষকেই পাবেন যারা বলবে যে এখনকার দিনে একটি লেখা পড়ার মত সময় মানুষের কাছে নেই। এর চেয়ে বরং ইউটিউবে একটি কয়েক মিনিটের ভিডিও দেখলেই তো হয়ে যায়। আপনি অনেককেই হয়ত বলতে শুনবেন যে ইউটিউবে অনেক বেশি ট্রাফিক পাওয়া যায়। নানাজনের নানা মত শুনে আপনিও হয়ত চিন্তায় পরে গিয়েছেন যে আপনি কোনটি শুরু করবেন ব্লগিং না ইউটিউবিং! কিন্তু মানুষ যা কিছু বলে তার থেকে আসল সত্যিটি কিন্তু একেবারেই ভিন্ন।

ব্লগিং এবং ইউটিউবিং দুটিই লাভজনক হতে পারে যদি আপনি এগুলিকে সঠিক ভাবে পরিচালনা করতে পারেন। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে এই দুটিই আপনার জন্য সুফল বয়ে আনতে পারে। এটি সম্পূর্ণ রুপে নির্ভর করবে আপনার রুচি এবং আপনার নিশ বা বিষয়ের উপর।

আজকে এই ব্লগটিতে আপনাকে এই 2022 এ দাঁড়িয়ে কোন জিনিসটি (ব্লগিং না ইউটিউবিং) শুরু করা উচিত তা বোঝানোর চেষ্টা করব।

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2022***

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***

আপনার নিশ বা বিষয় মোতাবেক কোন জিনিস টিতে প্রতিযোগিতা কম সেটি খুঁজুন:-

প্রথেমেই আপনাকে KEYWORD RESEARCH করতে হবে। আপনাকে দেখতে হবে আপনি যে KEY WORD টির উপর ফোকাস করে আপনার জার্নি শুরু করতে চলেছেন সেটির উপর কোন প্লাটফর্মে কতগুলি কনটেণ্ট রয়েছে। যেমন ধরা যাক কোনো ব্যক্তি SEO রিলেটেড বা SEO KEYWORD এর উপর কনটেন্ট তৈরি করতে আগ্রহী। এখন আপনাকে প্রথমে দেখতে হবে যে SEO এর উপর কোন প্লাটফর্মে কতগুলি কনটেন্ট রয়েছে। যেমন আপনি যদি ইউটিউবে খুঁজেন তাহলে আপনি SEO রিলেটেড অনেকগুলিই ভিডিও দেখতে পাবেন। কিন্তু আপনি যদি SEO রিলেটেড কোনো ব্লগ বা লেখা খুঁজেন তাহলে আপনি সীমিত পরিমাণে ফলাফল দেখবেন। তাই এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই ব্লগিং এর দিকে যাওয়া উচিত। তাই আপনাকে সর্বপ্রথম KEY WORD RESEARCH করতে হবে।

ব্লগিং vs ইউটিউব
BLOGGING IN 2021

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2021***

blogging in 2022**ব্লগিং করে টাকা আয়***

আপনার নিশ বা বিষয় সম্পর্কিত ভিডিও কেমন প্রভাব ফেলতে পারে?

এমন কিছু কিছু নিশ বা বিষয় আছে যেগুলি মানুষ দেখতে বা পর্যবেক্ষণ করতে বেশি পছন্দ করে। যেমন আপনি যদি কোনো প্রডাক্ট রিভিউ করেন তাহলে সেক্ষেত্রে ভিডিও বানানোর দিকে যাওয়াই আপনার জন্য ভালো হবে। কারন মানুষ যখন কোনো প্রডাক্ট কিনবে সে অবশ্যই চাইবে সেই জিনিসটি সরাসরি চাক্ষুষ করতে।

ব্লগিং vs ইউটিউব
BLOGGING IN 2021

মনিটাইজেশনের ক্ষেত্রে কোনটি সুবিধাজনক?

কিছু কিছু মানুষের ব্লগিং পছন্দ করার অন্যতম কারণ হল আপনি যখনই চাইবেন তখনই আপনি আপনার পোস্ট বা লেখাটিকে আপনার প্রয়োজন মত পরিবর্তন করতে পারবেন। যেমন ধরা যাক আপনি দেখলেন যে কিছু কিছু লেখা( অন্য জনের) আপনার লেখার থেকে বেশি ভালো RANK করছে সেক্ষেত্রে আপনি আপনার লেখিটিকে আরও ভালোভাবে সাজিয়ে নিতে পারবেন। যার ফলে আপনি সহজেই আপনার প্রতিযোগীকে টেক্কা দিতে পারবেন। কিন্তু ভিডিওএর ক্ষেত্রে আপনি একবার আপনার ভিডিওটি পাবলিশ করে দিলে আপনি আর সেটিকে পুনরায় সংশোধন করতে পারবেন না।

ব্লগিং এর আরেকটি অন্যতম সুবিধা হল আপনি চাইলে যে কোনো নেটওয়ার্ক থেকেই আপনার ব্লগ মনিটাইজ করতে পারবেন। কিন্তু ইউটিউবের ক্ষেত্রে আপনাকে গুগল অ্যাডসেন্স থেকেই আপনার ভিডিও কে মনিটাইজ করতে হবে। কিন্তু এক্ষেত্রে বলে রাখা ভাল যে গুগল অ্যাডসেন্সই মনিটাইজ এর শ্রেষ্ঠ মাধ্যম।

ব্লগিং vs ইউটিউব
BLOGGING AS A CARRER

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2022**

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***

কোনটিতে সবথেকে ভালো RANK পাওয়া যাবে?

এই প্রশ্নটি অনেকের মাথায় ঘুরে। এক্ষেত্রে আমি বলব আপনি উভয় প্লাটফর্মেই ভালো RANK করতে পারেন আপনার নিশ বা বিষয় মোতাবেক। বিস্তারিত জানার জন্য প্রথম পয়েন্টটি দেখুন।

SEO RANKING
SEO RANKING

আপনার WEBSITE MANAGING এর দক্ষতা কতটা?

KEY WORD RESEARCH এবং ON-PAGE SEO এগুলী আপনাকে ইউটিউব এবং ব্লগিং দুটি ক্ষেত্রেই আপনাকে সফলতা প্রদান করবে। কিন্তু WEBSITE এর ক্ষেত্রে আপনাকে MANAGMENT এর দক্ষতা থাকাটা অত্যন্ত জরুরী। আপনি যদি কিছুটা হলেও WEBSITE MANAGEMENT করা না জানেন আপনি ব্লগিং-এ কোনোদিনও সফলতা পাবেন না। কিন্তু ইউটিউবের ক্ষেত্রে এই দক্ষতার কোনো প্রয়োজন নেই। কেবল মাত্র ভিডিও টিকে SEO করে পাবলিশ করে দিলেই কাজ চলবে।

আরও পড়ূণঃ- HOW TO SECURE FACEBOOK ACOUNT ফেসবুক অ্যাকাউণ্টকে হ্যাঁক হওয়া থেকে বাঁচান FACEBOOK ACOUNT HACK BENGALI TOP 16 TIPS

পরিচিতিঃ-

যদি আপনি বাইরের মানুষদের সাথে নিজেদের পরিচিত করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে ইউটিউবে আসা উচিত। এখানে আপনি যদি আপনার মুখ দেখিয়ে ভিডিও বানান তবে আপনার পরিচিতি বৃদ্ধি পাবে। অপরদিকে ব্লগিং এ আপনি এই সুবিধাটি পাবেন না।

প্রয়োজনীয় বস্তু এবং ইডিটিং

ইউটিউবের ক্ষেত্রে আপানকে বেশ কিছু SOFTWARE এবং ভালো MICROPHONE এর প্রয়োজন। আর আপনি যদি আপনার মুখ দেখিয়ে ভিডিও বানাতে চান তার জন্য আপনার কাছে অবশ্যই একটি ভালো ক্যামেরা যুক্ত মোবাইল বা ক্যামেরা থাকা দরকার। আর  EDITING এর জন্য ভালো SOFTWARE গুলী PAID হয়। তাই অনেকটাই খরচ করতে হয়(for professional editing) কিন্তু ব্লগিং এর ক্ষেত্রে এই সবের প্রয়োজন নেই কেবল মাত্র আপনার মোবাইল বা ল্যাপটপে MS WORD আর একটি সাধারণ PHOTO EDITING SOFTWARE থাকলেই যথেষ্ট।

7 ways a blog can help your business right now 5f3c06b9eb24e 760x400 1
BLOGGING

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022**blogging as a career in 2021***

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***

আপনাকে কোন জিনিসটি শুট করবে সেটি দেখুনঃ-

আপনি যে বিষয়ে আগ্রহী সেই বিষয়টির দিকেই ঝুঁকুন। যদি আপনি মনে করেন যে আপনি কোনো বিষয়ে ভালো ভাবে লিখতে পাড়বেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে ব্লগিং এ যাওয়া উচিত। কিন্তু আপনি যদি মনে করেন যে আপনি কোনো কিছু বিষয়ে সরাসরি বর্ণনা করতে সক্ষম তাহলে আপনাকে অবশ্যই ইউটিউবে আসা উচিত। যেমন আমি পার্সোনালি ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে দুর্বল তাই ইউটিউব আমার জন্য না। আমি বারবার মুখ দেখিয়ে ভিডিও বানানোর কথা বলছি তার কারণ হল ইউটিউব এইধরণের ভিডিও কে বেশি SUPPORT করে। 

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022**blogging as a career in 2022***

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***

কোনটিতে দ্রুত সফলতা পাওয়া যাবে?

ব্লগিং-এ সাধারণত ইউটিবের থেকে কম দ্রুত সফলতা আসে। কিন্তু যদি আপনার DOMAIN এর AUTHORITY HIGH থাকে তাহলে আপনি ব্লগিং-এও দ্রুত সফল হতে পাড়বেন। আপনি যদি LOW COMPETITION KEYWORD বেঁছে নেন তাহলে আপনি ইউটিউবে দ্রুত সফল হতে পাড়বেন।

SUCCESS
YOUTUBE VS BLOGGING

ইনকাম কোনটিতে বেশি ব্লগিং না ইউটিউব?:-

ইনকামের ক্ষেত্রে অবশ্যই ব্লগিং বেশি। কারণ ইউটিউবে কেবল মাত্র কয়েকটি অ্যাড শো করা যায়। কিন্তু আপনি আপনার ব্লগ পোষ্টে আপনার ঈচ্ছে মত অ্যাড শো করাতে পারেন।

ব্লগিং এ যেভাবে আয় করা যায় সেগুলি হলঃ-

১. অ্যাড শো এর মাধ্যমে।

২. Affiliated Marketing এর মাধ্যমে।

৩. অন্যের website promote করে।

৪. কোম্পানির প্রোডাক্ট রিভিউ এর মাধ্যমে।

অন্যদিকে আপনি ইউটিউবে উপরোক্ত পদ্ধতি গুলির দ্বারাও আয় বাড়াতে পারেন কিন্তু ইউটিউবের ক্ষেত্রে সেগুলি কম কার্যকর।

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2022***

blogging in 2022**ব্লগিং করে টাকা আয়***

মূলধনের প্রয়োজনীয়তাঃ-

ইউটিউবের ক্ষেত্রে আপনার বিশেষ কোনো মূলধনের প্রয়োজন নেই।

ব্লগিং এর ক্ষেত্রে সফলতা পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই HOSTING এবং DOMAIN কিনতে হবে। আর আপনি বার্ষিক ৫০০০ টাকার নিম্নে কোনো ভালো DOMAIN এবং HOSTING পাবেন না। তাই আপনাকে অনেকটাই খরচ করতে হবে।

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2022**

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***

উপসংহারঃ-

অবশেষে আসি উপসংহার এর পার্টে। আমি পার্সোনালি আপনাকে বলব যে ব্লগিং এবং ইউটিউবিং দুটিকেই চেক করার। তবে এক্ষেত্রে প্রথমেই খরচ করার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনি ব্লগিং গুগল এর BLOGSPOT.COM থেকেই শুধুমাত্র কয়েকশ টাকা দিয়ে একটি DOMAIN কিনেই(ভালো ফলাফলের জন্য) শুরু করতে পারেন। পরবর্তীতে আপনার রুচি মোতাবেক চালিয়ে যাবেন। আর আপনি যদি ব্লগিং-এ সফল হয়ে যান তাহলে পরবর্তীতে BLOGSPOT এর থেকে কোনো ভালো HOSTING COMPANY-তে আপনার WEBSITE MIGRANT করে নিতে পারেন।

BLOGGER
BLOGGER

অবাক করা তথ্য পড়ুন

ব্লগিং vs ইউটিউব 2022***blogging as a career in 2021*

blogging in 2022***ব্লগিং করে টাকা আয়***


Spread the love

1 thought on “BLOGGING VS YOUTUBE IN 2022 BENGALI।। ব্লগিং vs ইউটিউব 2022।।BLOGGING IN 2022।। WHICH IS BEST CHOICE YOUTUBE OR BLOGGING”

  1. Pingback: ইউটিউব ভিডিও-র জন্য কন্টেন্ট কোথা থেকে পাব? ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ কিভাবে আনব? HOW TO FIND CONTENT FOR YOUTUBE VIDEOS TOP NEW 2 Q & A.

Leave a Reply