বিখ্যাতদের মজার ঘটনা আইনস্টাইনের মজার গল্প নিউটনের মজার ঘটনা এডিসনের মজার ঘটনা TOP 18 STORIES OF FAMOUS PERSONS

Spread the love

(বিখ্যাতদের মজার ঘটনা)আজ আমরা আজকের এই ব্লগটিতে তিন জন বিখ্যাত বিজ্ঞানীর জীবনে ঘটে যাওয়া কিছু মজার ঘটনা জানতে চলেছি এই তিন জন বিজ্ঞানী হলেন আইনস্টাইন, নিউটন এবং টমাস আল্ভা এডিসন। বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

আইনস্টাইনের মজার গল্প(বিখ্যাতদের মজার ঘটনা)

ঘটনা-০১

আইনস্টাইন একবার ট্রেনে চড়ে যাচ্ছেন। টিকিট চেকার এসে টিকিট চাইলে আইনস্টাইন খুঁজে পাচ্ছেন না কোথায় টিকিট টি রেখেছেন। টিকিট চেকার আইনস্টাইনকে চিনতে পেরে বললেন, ‘প্রফেসর, আপনাকে আর খুঁজতে হবে না। আমি জানি আপনি নিশ্চয় টিকিট কেটেছেন’। আইনস্টাইন ব্যস্ত হয়ে বললেন; ‘না, না, খুঁজতে হবে; ওটা না পেলে আমি জানব না আমি কোথায় যাচ্ছি!’

ঘটনা- ০২

একবার আইনস্টাইনকে সফলতা লাভের একটি গাণিতিক ফর্মূলা দিতে বলা হয়। তিনি বলেছিলেন,” X+Y+Z=A, যেখানে X=কাজ, Y=খেলাধুলা আর A= সফলতা।” আর মানে Z কী?” আবারও জিজ্ঞেস করা হল তাঁকে।আইনস্টাইনের উত্তর “তোমার মুখ বন্ধ রাখা’, ।

ঘটনা-০৩

এক সহকর্মী আইনস্টাইনের কাছে একবার তাঁর টেলিফোন নম্বরটা চাইলেন। তখন আইনস্টাইন একটা টেলিফোন বই খুঁজে বের করলেন এবং সে বইতে তাঁর নম্বরটা খুঁজতে লাগলেন। তখন সহকর্মীটি বললেন,‘কী ব্যাপার, নিজের টেলিফোন নম্বরটাও মনে নেই আপনার?’ আইনস্টাইন বললেন, ‘না। তার দরকারই বা কী? যেটা আপনি বইতে পাবেন, সে তথ্যটা মুখস্থ করে মস্তিষ্ক খরচ করবেন কেন?’

বিখ্যাতদের মজার গল্প

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

ঘটনা-০৪

তিন হাজার শব্দের মধ্যে আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতার সাধারণ তত্ত্ব যে সবচেয়ে ভালো ব্যাখ্যা করতে পারবে, তার জন্য মোটা অঙ্কের পুরস্কার ঘোষণা করে সায়েন্টিফিক আমেরিকান। পরে আইনস্টাইন মন্তব্য করেন ‘বন্ধুদের মধ্যে কেবল আমিই অংশ নিইনি। কারণ আমার বিশ্বাস হয়নি তিন হাজার শব্দে এটা ভালো বোঝাতে পারতাম আমি’।

ঘটনা-০৫

ভবিষ্যতে কী আছে? আলবার্ট আইনস্টাইনের কাছে একবার জানতে চাওয়া হয়েছিল। জবাবে নিরাসক্ত ভঙ্গিতে আইনস্টাইন বলেছিলেন, ‘ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি কখনোই চিন্তা করি না। কারণ, এটা এমনিতেও তাড়াতাড়িই আসে।

ঘটনা-০৬

আইনস্টাইন এর মেয়ের বিয়ে। সবাই চার্চে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে উনি উনার মেয়েকে বললেন তুমি চার্চের দিকে যাও আমি ল্যাবে আমার কলমটা রেখে আসছি। মেয়ে অনেক বারন করা সত্বেও উনি গেলেন, ৩০ মিনিটের কথা বলে উনি যখন এলেন না তখন সবাই মিলে উনার মেয়ের বিয়ে দিয়ে দিলেন।

৭ দিন পর উনার মেয়ে যখন বাসায় এসে মাকে জিজ্ঞাস করলো বাবা কোথায় তখন তার মা বলল ওই যে গেল আর আসে নাই। তখন উনি আইনস্টাইন এর খোজে ল্যাবে গেল। ল্যাবে গিয়ে দেখল যে তার বাবা একটা কলম নিয়ে বোর্ড এর সামনে গিয়ে কি জানি চিন্তা করছিল। মেয়ে বাবা কে বলল বাবা কি কর। তখন উনি বললেন যে ‘মা তুমি চার্চে যাও আমি এই কাজটা ১০ মিনিটের মধ্যে শেষ করে আসছি।’

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

ঘটনা-০৭

একবার এক ছাত্র আইনস্টাইনকে জিজ্ঞেস করল, ‘গত বছর পরীক্ষায় যেসব প্রশ্ন পড়েছিল, এবারের পরীক্ষায়ও কি ঠিকঠিক ওই সব প্রশ্নই পড়েছে।’ ‘ঠিক বলেছ।’ আইনস্টাইন বললেন, ‘কিন্তু এ বছরের উত্তরগুলো আগেরবারের চেয়ে সম্পূর্ণ আলাদা!’

ঘটনা-০৮

আইনস্টাইন তুলনামূলক দেরিতে কথা বলতে শেখেন। ফলে তাঁর মা-বাবা খুব দুশ্চিন্তায় পড়ে যান। তো, একদিন রাতে খাবার টেবিলে সবাই আছেন। সাথে আছে আইনস্টাইনও। হঠাৎ তিনি চিত্কার করে বললেন, ‘এই স্যুপটা খুবই গরম।’ উহ্, হাঁপ ছেড়ে বাঁচলেন মা-বাবা। ছেলের মুখে প্রথম বুলি শুনে তাঁরা আইনস্টাইনকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘এর আগে কেন তুমি কোনো কথা বলনি?’ জবাবে আইনস্টাইন বললেন, ‘কারণ, এর আগে সবকিছু ঠিকঠাক ছিল!’

ঘটনা-০৯

১৯৩৫ সালে প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে আইনস্টাইনকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ‘পড়াশোনা ও গবেষণার জন্য আপনার কী কী দরকার?’ আইনস্টাইন বললেন, ‘একটা ডেস্ক, কিছু কাগজ আর একটা পেনসিল। সঙ্গে দরকার বড় একটা ডাস্টবিন, যেখানে আমার সব ভুল করা বা ভুলে ভরা কাগজগুলো ফেলব!’

ঘটনা-১০

অনেকের কাছে অঙ্কের সমার্থক শব্দ আতঙ্ক। তো, একবার ১৫ বছর বয়সী এক তরুণী আইনস্টাইনের কাছে সাহায্য চাইল। গণিতের ওপর বাড়ির কাজ বা হোম ওয়ার্ক সে সঠিকভাবে করতে পারছিল না। তরুণীর কাছে অঙ্ক মানেই এমনিতেই আতঙ্কের আরেক নাম। আইনস্টাইন ওই তরুণীকে বলেছিলেন,‘গণিতের সমস্যা নিয়ে খুব বেশি দুশ্চিন্তা করো না। তোমার কাছে গণিত যতটা কঠিন, আমার কাছে গণিত তার চেয়েও কঠিন।’

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

ঘটনা-১১

১৯২১ সালে ফিলিস্তিন ভ্রমণে বেরিয়েছেন আইনস্টাইন। সেখানে ‘যুব-সংঘ’ নামের এক প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন ২২ বছর বয়সী এক তরুণী। সমাজের নানা বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করছিলেন আইনস্টাইন। একবার আইনস্টাইন তাঁর কাছে জানতে চাইলেন, ‘আচ্ছা, এখানে নারী-পুরুষে সম্পর্ক কেমন?’ এ প্রশ্নশুনে ওই তরুণী লজ্জায় পড়ে গেলেন।

তিনি বললেন, ‘দেখুন অধ্যাপক, এখানে কিন্তু একজন পুরুষের একটিই স্ত্রী।’ একটু হেসে তাঁর হাতখানা ধরে আইনস্টাইন বললেন, ‘না, না। আমার প্রশ্নটা ওভাবে নিয়ো না। আমরা পদার্থবিজ্ঞানীরা “সম্পর্ক” কথাটা দিয়ে সহজ কিছুকে বোঝাই। আমি আসলে জানতে চেয়েছি, এখানে কতজন নারী আর কতজন পুরুষ মানুষ।’

নিউটনের মজার ঘটনা(বিখ্যাতদের মজার ঘটনা)

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

ঘটনা- ১

একদিন নিউটন লক্ষ্য করলেন, স্কুলের অধ্যক্ষের শ্যালক প্রায়ই স্কুলে আসতে দেরি করতেন। চিন্তা করতে করতে হঠাৎ তাঁর মাথায় বুদ্ধি আসলো। সেই মুহূর্তে নিউটন বলে ওঠলেন, ‘স্যার আপনার জন্য একটা ঘড়ি তৈরি করে দিচ্ছি যা দিয়ে ঠিক সময়ে স্কুলে আসতে পারবেন।’ কিন্তু নিউটন ঘড়িটা তৈরি করলেন কিভাবে?

তিনি যে ঘড়িটা তৈরি করলেন সেই ঘড়ির উপরে থাকতো জলের পাত্র। প্রতিদিন নির্দিষ্ট ফোঁটা ফোঁটা জল ঘড়ির কাঁটার উপরে পড়ত। এর ফলে ঘড়ির কাঁটা আপন গতিতে এগিয়ে চলতো সামনের দিকে। এভাবে সময় গণনা করা হতো। কেমন, মজার না!

ঘটনা- ২

এক রাতের ঘটনা। নিউটন তাঁর এক বন্ধুকে সেই রাতে তাঁর বাড়িতে নিমন্ত্রণ করেছিলেন। অথচ তিনি একদম ভুলে গিয়েছিলেন। গণিতের এক জটিল সমস্যা সমাধানে তিনি গভীর মগ্নতায় ডুবে ছিলেন। বন্ধুটি যথাসময়ে এসে তা লক্ষ্য করলেন। ফলে চুপচাপ বসে রইলেন তাঁর অপেক্ষায়। বেশ কিছুক্ষণ পর খাবার এলো। শুধু একজনের খাবার। বন্ধুটি মনে করলেন, তার জন্যই এ খাবার আনা হয়েছে। বন্ধুটি নিউটনকে বিরক্ত না করে চুপচাপ খাবার খেয়ে ফেললেন।

এর কিছুক্ষণ পর গণিতের সমাধান শেষ করে বন্ধুর দিকে তাকিয়ে নিউটন তো রীতিমত অবাক! এবার তাঁর খেয়াল হলো, বন্ধুকে নিমন্ত্রণ করার কথা ভুলেই গিয়েছিলেন। খাবারবিহীন প্লেটের দিকে নজর পড়তেই বন্ধুকে বললেন, ‘ভাগ্যিস তুমি এসেছো। নইলে তো বুঝতেই পারতাম না যে আমি এখনো খাইনি’। এই ছিলো আত্মভোলা নিউটনের মজার কান্ড।

ঘটনা-৩

বিজ্ঞানী ও সাধকগণ কখনো কখনো এমন আত্মমগ্নতায় বিভোর হয়ে থাকেন যে সবকিছুই ভুলে যান সেই সাধনার মুহূর্তে। এমনিভাবে নিউটন কোনো নতুন বৈজ্ঞানিক ভাবনায় ডুবে থাকতেন। আরও একদিনের ঘটনা। একজন লোক তাঁর বাড়িতে এসে একটা প্রিজম (তিনকোণা কাঁচ) দেখিয়ে জিজ্ঞেস করলেন, এর দাম কত হতে পারে। সেই ব্যক্তি নিউটনের কাছে এই প্রিজমটি বিক্রির জন্যই এসেছিল।

এ সময় নিউটন প্রিজমের বৈজ্ঞানিক গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে বললেন, এর প্রকৃত মূল্য নির্ণয় করা তাঁর সাধ্যের বাইরে। ফলে লোকটি বেশি দাম চাইল। নিউটন সেই দামেই প্রিজমটি কিনে ফেললেন। কিন্তু অবাক করার বিষয় হল, পরবর্তীকালে এই প্রিজম থেকেই তিনি উদ্ভাবন করেন বর্ণতত্ত্ব (The theory of color)।

টমাস আলভা এডিসনের মজার ঘটনা

rtnlwaoatf 1531400367 624x328 1

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

ঘটনা – ০১

বিজ্ঞানী টমাস আলভা এডিসনের কথা তো আমরা সবাই জানি। তিনি ছিলেন খুব ভুলোমনা ,কোনো কিছুই মনে রাখতে পারতেন না। একবার তিনি তার এক বন্ধুকে তার বাড়িতে খাবার আমন্ত্রণ দিলেন। অথচ নিমন্ত্রণের দিন এডিসন নিজেই বন্ধুকে নিমন্ত্রণ দেওয়ার কথা ভুলে গেলেন। যথাদিনে বন্ধু এসে হাজির। এসে দেখেন বাড়িতে কেউ নেই। বন্ধুটি তাই তার বিজ্ঞানী বন্ধুটির জন্য অপেক্ষা করতে থাকলো। কিন্তু সময় গড়িয়ে যায়, বন্ধুতো আসে না।

অবশেষে খিদে লাগায় বন্ধুটি খিদে সইতে না পেরে টেবিলে রাখা খাবারের প্লেট থেকে সব খাবার নিজেই সাবাড় করে দেয়। কিছুক্ষন পরে এডিসন আসলেন। এসে বন্ধুকে দেখে অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলেন “আরে বন্ধু, তুমি এই অসময়ে আমার বাড়িতে! দাঁড়াও দেখি তোমার জন্য কোনো খাবার আছে কিনা”।

এই বলে তিনি টেবিলে রাখা খাবারের প্লেটটির ঢাকনা তুলে দেখেন প্লেটটি খালি। এর পর আফসোস করে বন্ধুকে বলতে লাগলেন, “এই দেখো কান্ড,তোমার জন্য কিছুই রইল না। যাওয়ার সময় যে আমি খাবারটি খেয়ে গিয়েছিলাম তাও ভুলে গেছি।” অথচ খাবার কিন্তু তিনি খেয়ে যাননি।

ঘটনা-০২

এডিসন একবার তার নাম ভুলে গিয়েছিলেন। ট্যাক্স জমা দেওয়ার জন্য ট্যাক্স অফিসে গিয়ে তিনি কিছুতেই তার নাম মনে করতে পারছিলেন না।এমন সময় তার এক পড়শি তাকে দেখে বলেন। ‘আরে এডিসন না।’ তখন তার নিজের নাম মনে পড়ে !

ঘটনা-০৩

বিজ্ঞানি টমাস আলভা এডিসন অনেক আগে একটি হেলিকপ্টার বানানোর বুদ্ধি করেছিলেন যেটা চলবে বন্দুকের বারূদ দিয়ে। কিন্তু তাঁর এই বুদ্ধিটা খুব একটা বুদ্ধিমানের মত ছিল না..!! কারণ এটা বানাতে গিয়ে তিনি তাঁর পুরো ল্যাবরেটরি উঁড়িয়ে দিয়েছিলেন…!!

ঘটনা-০৪

লাইট বাল্বের আবিষ্কারক টমাস আলভা এডিসন অন্ধকারকে ভয় পেতেন। এডিসন সম্পর্কিত আরও মজার একটা তথ্য আছে সেটা হল, ১৯৪১ সালে যখন তিনি মারা যান তখন তার শেষ নিঃশ্বাস একটি বোতলে ভরা হয়েছিল। এই কাজটি যিনি করেছিলেন তিনি হলেন ফোর্ড মোটর কোম্পানির মালিক হেনরি ফোর্ড।

বিখ্যাতদের মজার ঘটনা

STORY RELATED TO FAMOUS PERSONS


Spread the love

Leave a Reply